ভার্চুয়াল স্ট্যাটাস…প্রকাশ করুন আর নাই করুন, আপনি কিন্তু প্রকাশিত, ভার্চুয়াল সমাজে আপনি অজান্তেই সামাজিক হয়ে উঠেছেন

আইনস্টাইন বলেছিলেন- “বাস্তবতা নিছক একটি বিভ্রম, যদিও এটি খুব স্থায়ী”,

 

প্রকাশ করুন আর নাই করুন, আপনি কিন্তু প্রকাশিত। ভার্চুয়াল সমাজে আপনি অজান্তেই সামাজিক হয়ে উঠেছেন। সশরীরে সামাজিকতা রক্ষা করতে গিয়ে আপনি ভার্চুয়াল সমাজের অংশ হয়ে গেছেন, আপনার ইচ্ছে বা অনিচ্ছার কে আর ধার ধারে বলুন? কিছু বললে আপনাকেই সবাই অসামাজিক বলবে কারণ নতুন এই সমাজ তো প্রতি মুহূর্তেই নিজের স্ট্যাটাস পাল্টায়। যাক তবু ভাল, স্ট্যাটাসটা এখন সবাই বজায় রাখার চেষ্টা করছেন!!!
কি ছিনু? কি পেনু? আর কি হনু?  ভার্চুয়াল স্ট্যাটাস দেখে সব জানা যায়। তবে এই সমাজে সবাই সমান, সব শ্রেণীর মানুষের অবাধ প্রবেশ।
সকালের ক্লান্তি, চায়ের কাপে চুমুক, অফিস যাওয়ার সময় ট্রাফিক জট, সবকিছুই চোখের নিমেষে আপডেট। শুধু কি তাই, স্কুল পালিয়ে সিনেমায় যাওয়া, নিজের অজান্তে বউয়ের কাছে ধরা পরে যাওয়া কিংবা প্রেমিক যুগলের ব্রেকআপ, সবকিছুতেই সোশ্যাল মাধ্যমের প্রবেশ।
রাস্তায় পড়ে থাকা আহত ব্যক্তিকে হাসপাতালে না নিয়ে সেলফি তুলে পোস্ট…বাহ! আমি পেরেছি!…

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.