বিশ্বে প্রথম সমুদ্রতলে অবস্থিত রেস্তোরাঁ “UNDER”

বিশ্বের মধ্যে তো বটেই, সমগ্র ইউরোপেও প্রথম এবং বৃহত্তম রেস্তোরাঁ ”UNDER”। ১০০ আসন ক্ষমতাসম্পন্ন রেস্তোরাঁটি সামুদ্রিক গবেষণা কেন্দ্র হিসাবেও কাজ করে। ইতিমধ্যেই পর্যটকদের গন্তব্য তালিকায় নরওয়ের নাম জুড়ে গিয়েছে।

courtesy: snohetta

ড্যানিশরা “UNDER” শব্দটিকে “নীচের” এবং “আশ্চর্য”, দুই অর্থেই বিবেচনা করে থাকেন । ১১১ ফুট দীর্ঘ কংক্রিটের কাঠামোটি সম্পূর্ণভাবে সমুদ্রের পরিবেশের সাথে সামঞ্জস্য রেখে নির্মিত হয়েছে।

courtesy: snohetta

পুরু কংক্রিট দেওয়াল বিশিষ্ঠ রেস্তোরাঁটিকে একটি মগ্ন ডুবো-জাহাজ পরিখা বলে মনে হয়। রেঁস্তোরার বৃহদায়তন প্যানারোমিক জানালা দিয়ে সমুদ্রতলদেশের আবহাওয়া ও সামুদ্রিক পরিবর্তনের স্বাক্ষী হওয়া যাবে।

courtesy: snohetta

স্থপতিদের মতে এটি দক্ষিণ নরওয়ের একটি নতুন ল্যান্ডমার্ক। এখানে আপনি সমুদ্রের মধ্যে নিজেকে খুঁজে পাবেন। এটি আপনাকে জলপথের মধ্যে দিয়ে বিশ্বকে দেখার এক নতুন দৃষ্টিভঙ্গি সরবরাহ করবে।

courtesy: snohetta

রেস্তোরাঁটি আপনাকে একটি অভূতপূর্ব ডাইনিং অভিজ্ঞতা প্রদান করবে। ১৬ জনের বিশেষজ্ঞ একটি শেফের দল সামুদ্রিক মেনু পরিবেশন করার জন্য প্রস্তুত।

courtesy: snohetta

নরওয়েতে, লিন্ডেসনেস তার তীব্র আবহাওয়ার জন্য পরিচিত, যে কোন সময় শান্ত অবস্থা থেকে ভয়ঙ্কর ঝড়ে পরির্তিত হতে পারে। যদিও পর্যটকদের কাছে অনুভূতি থাকে শান্ত, কারণ তারা ওক-ক্ল্যাড ফায়ারে প্রবেশ করে যা তাদের জন্য এক উষ্ণ পরিবেশের সৃষ্টি করে। সুন্দর নকশা করা সিলিং প্যানেলে মহাসাগরের মধ্যে অস্তমিত সূর্যের আভা ধাক্কা খেয়ে সিঁড়ি বেয়ে নিচে নেমে আসে।

courtesy: snohetta

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের সাথে আপোষ ছাড়াই এখানকার আসবাবপত্রগুলি বানানো হয়েছে। ভবিষ্যতের জন্য এমন এক কঠিন কাঠামো যা এই রেস্তোরাঁটির এক সক্রিয় প্রতিনিধির ভুমিকা পালন করছে।

শুধুমাত্র একটি রেস্তোরাঁ নয়। মাছের আচরণ অধ্যায়ন এবং সামুদ্রিক জীববিজ্ঞান গবেষণার এক কেন্দ্র হিসাবেও সক্ষম। পরিবেশগত ভারসাম্যকে বজায় রেখে ভূদৃশ্য এবং সমুদ্রের বৈপরীত্য একসাথে অনুধাবন করা যায়।

You may also like...

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.